রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১

লেবাননের বিপক্ষে পয়েন্ট চায় বাংলাদেশ

প্রকাশিত - ১১ জুন, ২০২৪   ০২:১২ পিএম
webnews24

প্রভাত রিপোর্ট : অষ্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলার পর অবসরের ফুসরত পায়নি বাংলাদেশ দল। বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় ম্যাচ খেলার পরই পরই কাতারের বিমান ধরতে হয়। সেখানেই মঙ্গলবার রাত দশটায় লেবাননের বিপক্ষে মাঠে নামবে জামাল ভুইয়ার দল। কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে নূন্যতম এক পয়েন্ট হলেও নিয়ে ফিরতে চায় লাল সবুজ প্রতিনিধিরা। যদিও বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ যৌথ বাছাইয়ের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রেয়তর দল হিসেবে এগিয়ে থাকবে লেবানিজরা। যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটি ম্যাচটি আয়োজন করছে নিরপেক্ষ ভেন্যু কাতারে। এই ম্যাচটি প্রথমে আল সাদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। হঠাৎ করেন কাতার ফুটবল এসোসিয়েশন ম্যাচের ভেন্যু পরিবর্তন করে খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে স্থানান্তর করেছে। ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপের অন্যতম ভেন্যু ছিল এই খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম। গ্রুপ পর্বের ছয়টি, দ্বিতীয় রাউন্ডের একটি ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচসহ মোট আটটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল এই স্টেডিয়ামে।

বিশ্বকাপ না খেলেও বিশ্বকাপের ভেন্যুতে বাংলাদেশ ম্যাচ খেলার সুযোগ পাচ্ছে, যা বিশেষ এক ঘটনাই। ৩০ বছর আগে এই খলিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে দুটি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ দল। ১৯৯৪ সালে কাতারের স্বাধীনতা কাপ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ ছিল অন্যতম আমন্ত্রিত দল। সে সময় আবাহনী, মোহামেডান ও ব্রাদার্স ভেঙে শক্তিশালী দল হয়ে ওঠা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রই ‘জাতীয় দল’ হিসেবে খেলেছিল স্বাধীনতা কাপে! গ্রুপের প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৪-২ গোলে হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে ইয়েমেনকে মিজানুর রহমানের একমাত্র গোলে হারিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। খলিফা স্টেডিয়ামে লেবাননের বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে তাই অতীত সুখস্মৃতিও সঙ্গী হচ্ছে। তবে ম্যাচের আগে এসব নিয়ে ভাবছে না বাংলাদেশ। তাদের লক্ষ্য লেবাননের কাছ থেকে পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব শেষ করা।

ম্যাচের একদির আগে বাফুফের মাধ্যমে পাঠানো বার্তায় বাংলাদেশ দলের সহকারী কোচ হাসান আল মামুন বলেছিলেন, কাতারের গরম আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করার কথা। একই সুর শোনা গিয়েছিলেন রহমতের কণ্ঠে। বিশ্বনাথ ঘোষও তার পাঠানো বার্তায় বলেন, তাদের সাম্প্রতিক সময়ে গরমের মধ্যে খেলার অভিজ্ঞতার কথা। তিনি বলেন, এখানকার আবহাওয়া সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের আবহাওয়া যেমন হয়ে গেছে, আমার কাছে এখানকার আবহাওয়া আর আমাদের আবহাওয়ার মধ্যে তেমন একটা পার্থক্য নেই। হয়ত ১৯-২০। এখন আবহাওয়া যেমনই হোক, সেটা মাথায় নিয়ে থাকলে তো আমাদের কাজ হবে না। আমাদের যেটা কাজ, সেই কাজটাই করতে হবে। আমরা যে লক্ষ্য নিয়ে আসছি, সেই লক্ষ্য যেন পরিপূর্ণ করতে পারি, সফল হতে পারি।’ দলের অবস্থা এখন অনেকটাই ভালো জানিয়ে কার্ডের কারণে অস্ট্রেলিয়া মিস করা এই ডিফেন্ডার বলেন, অস্ট্রেলিয়ার সাথে আমরা বড় একটা ম্যাচ খেলে এসেছি। ওইখানে আমরা হেরেছি, কিন্তু আমাদের খেলোয়াড়রা যেভাবে খেলেছে, ভালো করেছে, তো ওইটার কারণে আমরা খুব আশাবাদী।

দেশে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আমরা যেভাবে খেলেছি, সেভাবে যদি এখানে খেলতে পারি, তাহলে এখান থেকে ভালো কিছু করে ফিরতে পারব।’ ‘ভালো কিছু’ বলতে লেবানন ম্যাচে বাংলাদেশের লক্ষ্য পয়েন্ট পাওয়া। চলমান বাছাইয়ে তারা একমাত্র পয়েন্ট পেয়েছে লেবাননের বিপক্ষেই। কাবরেরাও ইতিবাচক কিছু দিয়ে বাছাই শেষ করতে চান। গত দুই দিনে রিকভারির দিকে মনোযোগ দেওয়ার পর এখন মূল ছক কষবেন বলেও জানিয়েছেন এই স্প্যানিশ কোচ। ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমরা জানতাম এখানে সকালের আবহাওয়া ভীষণ গরম হবে, ৪০-৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মতো হবে। সাড়ে ছয়টার দিকে সূর্য অস্ত যাওয়ার পর এখানকার তাপমাত্রা কমে যায়। সকালের ট্রেনিং সেশনের মতো অতটা গরম থাকে না। আমরাও ভালোভাবে প্রস্তুতি নিয়েছি। ম্যাচটাও এই সময়ে হবে, তো আমি মনে করি, ম্যাচ যেহেতু এই সময়ে, আবহাওয়া কোনো ইস্যু হবে না।’ তবে ভেন্যু পরিবর্তন হলেও ম্যাচের সময় অবশ্য পরিবর্তন হয়নি। কাতারের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা, বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ-লেবানন ম্যাচটি।

এদিকে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ স্টেডিয়ামে খেলবেন জামাল ভূঁইয়ার দল। বিশ্বকাপ খেলা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারলেও লড়াকু মনোভাব দেখিয়েছেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা। সেই আত্মবিশ্বাস সঙ্গী করেই বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ যৌথ বাছাইয়ে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ খেলতে কাতারে পাড়ি জমিয়েছে দল। এই ম্যাচটি প্রথমে আল সাদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে কাতার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন ম্যাচের ভেন্যু পরিবর্তন করে খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে স্থানান্তর করেছে। কাতার ২০২২ বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজন করেছিল। বিশ্বকাপের অন্যতম ভেন্যু ছিল খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম। গ্রুপ পর্বের ছয়টি, দ্বিতীয় রাউন্ডের একটি ও তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে। এই স্টেডিয়ামে মাস দুয়েক আগে যুব এশিয়া কাপেরও ভেন্যু ছিল। ভেন্যুর কম্পিটিশন অফিসারের দায়িত্ব পেয়েছিলেন বাফুফের কম্পিটিশন ম্যানেজার জাবের বিন তাহের আনসারী। বর্তমানে কাতারের দোহায় দিনের বেলা তাপমাত্রা থাকে ৪৫-৪৮ ডিগ্রির মতো। রাতের বেলা তা কমে আসে ৩৬-৩৭ ডিগ্রিতে। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে শেষ ম্যাচটি খেলতে বাংলাদেশ দল আপাতত কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন হাভিয়ের কাবরেরার শিষ্যরা। 
প্রভাত/আসো
 

ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন
ওয়েব নিউজ ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

আরও পড়ুন